দক্ষিন সন্দ্বীপে ৬০ মৌজা সীমানা নির্ধারনের দাবীতে পথসভায় ভূমি হারানোদের চোখে মুখে দ্রোহের আগুন।

দক্ষিন সন্দ্বীপে ৬০ মৌজা সীমানা নির্ধারনের দাবীতে পথসভায় ভূমি হারানোদের চোখে মুখে দ্রোহের আগুন।

১৯১৩ থেকে ১৯১৬ সালে প্রস্তুতকৃত সি.এস ম্যাপ অনুযায়ী সন্দ্বীপ সীমানা নির্ধারণ করে বুঝিয়ে দেয়ার দাবিতে এবং আন্ত:জেলা সীমানা নির্ধারণ না করেই চট্টগ্রাম জেলা’র সন্দ্বীপ উপজেলা’র সাবেক ন্যায়ামস্তি ইউনিয়ন বর্তমান ভাসান চর কে নোয়াখালী জেলা’র অধীন থানা ঘোষনার প্রতিবাদে -আজ দক্ষিন সন্দ্বীপের বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন স্থান ও হাটবাজারে পথ সভা ও লিফলেট বিতরন করেছে সন্দ্বীপ সন্মিলিত অধিকার আন্দোলন কমিটি । দক্ষিন সন্দ্বীপের আলীমিয়ার বাজার,মুছাপুর দিঘি তেমাথা,তহশিলদারের তেমাথা, চৌধুরী বাজার,ফকিরিয়া তেমাথা ও শিবের হাটে অনুষ্ঠিত পথসসভা গুলো যেন একেকটি বিশাল জনসভায় রুপ নিয়েছে।মানুষ শীতের কষ্টকে উপেক্ষা করে নিজেদের বাপ দাদার ভিটে মাটি কিভাবে নোয়াখালীর অংশ হিসেবে অন্যায় ভাবে ঘোষনা হয়েছে, কিভাবে নীরবে তারা ভুমিদস্যুতার শিকার হচ্ছে সে বক্তব্যগুলো তাদের হৃদয় স্পর্শ করে যেন দ্রোহের দাবানল ছড়িয়ে দিচ্ছে।এখন প্রয়োজন শুধু বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেওয়া ও সঠিক নেতৃত্বের সঠিক নিদ্দেশনা যার মাধ্যমে নিশ্চিত বিজয় আসবে।
সভাগুলোতে বক্তব্য রাখেন ৬০ মৌজা সীমানা আন্দোলনের রিট আবেদনকারী মনিরুল হুদা বাবন,সন্মিলিত অধিকার আন্দোলনের অাহব্বায়ক হাসানুজ্জামান সন্দ্বীপি সন্দ্বীপ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি সুফিয়ান মানিক, সাংগঠনিক সম্পাদক কবি বাদল রায় স্বাধীন এনাম নাহারের বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী আসিফ আক্তার, মন্জুর মাওলা,সিপিপির ইউনিট লিডার কার্তিক চক্রবর্তী,সন্দ্বীপ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সামিউদুল্ল্যাহ সীমান্ত, ইউপি মেম্বার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আজগর হোসেন, রেমিটেন্স যোদ্ধা মোঃ দিদার ,যুবলীগ নেতা কাউসার মাহমুদ দিদার উদ্দীন, কলেজ ছাত্র আল-আমিন প্রমুখ

বক্তারা দাবী আদায় না হলে পরবর্তীতে সন্দ্বীপ সহ, ঢাকা- চট্টগ্রামের বিভিন্ন জায়গায় জনসভা, মহা সমাবেশ,বিক্ষোভ মিছিল ও গন- অনশনের মতো কঠোর অান্দোলনের ঢাক দেবেন বলে ঘোষনা দেন।তাতে সাধারন জনগন অংশগ্রহন করে আন্দোলনকে জনস্রোতে পরিনত করার প্রতিশ্রুতি দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here