সন্দ্বীপে এসডিআই ভেল্যুচেইন প্রকল্পের ১০ টি মোড়া মহিষ বিতরন

সন্দ্বীপে এসডিআই ভেল্যুচেইন প্রকল্পের ১০ টি মোড়া মহিষ বিতরন

উপকূলীয় চরাঞ্চলে বিশেষ করে সন্দ্বীপ ও উড়িরচরে মহিষের উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে উদ্যোক্তাদের আয়বৃদ্ধিকরন শীর্ষক ভ্যালচেইন উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এসডিআই ১০ জন উদ্যোক্তা কৃষক বা মহিষ খামারীকে ১০ টি মোড়া মহিষ বা ষাঁড় মহিষ প্রদান করেছে ২৭ নভেম্বর । যার আনুমানিক মুল্য ১২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।উক্ত প্রকল্পটি পল্লি কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন ( পিকেএসএফ) এর আর্থিক সহায়তায় পরিচালিত হয়।এই ষাঁড় মহিষ উন্নত মহিষ প্রজননের জন্য ব্যবহৃত হবে।

এই মহিষ বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিদর্শী সম্বোধী চাকমা।

মহিষ প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এসডিআই সন্দ্বীপ অঞ্চলের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক সাইদুর রহমান।

অনুষ্ঠানে মহিষ পালন ও এর ব্যবহার বিষয়ে বক্তব্য প্রদান করেন পেইস প্রকল্পের ভ্যালুচেইন ফ্যাসিলিটেটর ডাঃ রিপন কুমার ভৌমিক।এসডিআই আকবর হাট শাখার ব্যাবস্থাপক আলী হোসেন বাউরিয়া, শাখার ব্যবস্থাপক ফসিউল আলম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন সন্দ্বীপ ও উড়ির চরের বিশাল জেগে উঠা নতুন চর মহিষ পালনের দারুন ক্ষেত্র তৈরি করেছে। এছাড়াও কৃষি প্রধান বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রানী সম্পদের গুরুত্ব অপরীসিম। প্রানী পালন পেশা আজ আর অবহেলিত নয়। প্রানী সম্পদ বর্তমানে প্রানীজ আমিষ,জৈবসার, জ্বালানী সরবরাহ ও বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনেই সীমাবদ্ধ নয়,কর্ম সংস্থান সৃষ্টি, দারিদ্র বিমোচন ও অার্থ সামাজিক উন্নয়নে এ খাত বিশেষ অবদান রাখছে।আর আজকে প্রদত্ত ষাঁড় মহিষ গুলো উন্নত জাত বেছে প্রদান করা হয়েছে এর মুল উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রজননের মাধ্যমে পুরো সন্দ্বীপে উন্নত জাতের মহিষের বৃদ্ধি ঘটিয়ে মহিষ পালনকে আরো লাভজনক করা। পুরো সন্দ্বীপের মহিষের প্রজনন ঘটাতে এই মহিষ গুলো বিনে পয়সায় প্রজনন ঘটাবে তার জন্য কোন টাকা নেওয়া হবেনা। এলাকাবাসী ও খামারীরা এসডিআই এর এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানান এবং দারিদ্র বিমোচনে এটা একটা যুগান্তকারী পদক্ষেপ বলে জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here